নুরুল হক নুর বাংলাদেশের ছাত্র রাজনীতিতে নুতুন করে ইতিহাসের জন্ম দিয়েছেন; আর এর বীজ তিনি বপন করেছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে। সমস্ত বাধা বিপত্তি অতিক্রম করে সাধারণ ছাত্রদের পাশে থাকার দৃঢ় সংকল্প তাকে ব্যাপক জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছে। তাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাকসুর কলঙ্কতি নির্বাচনও তার বিজয় ঠেকাতে পারেনি। তিনি এগারো হাজারেরও বেশি ভোট পেয়ে ভিপি নির্বাচিত হয়েছেন।

বর্তমান যে ইতিহাস নুরুল হক রচনা করেছেন সেই ইতিহাসের সাক্ষী হিসাবে হাজার হাজার সাধাণ ছাত্র তাকে নীরবে ভোট দিয়ে ভোট বিপ্ল্লব ঘটিয়েছেন। যদিও জয়ের জন্য নুরুল হক ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন কোনো প্রচার প্রচারণা ছাড়া কোনো অর্থনৈতিক ব্যাকআপ ছাড়া। তার এ বিজয় অনেককেই অবাক করেছে কেননা তার উপর অমানুষিক নিপীড়ণ চলমান ছিল, এমনকি ভোটার দিন সকালেও তিনি মার খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ।

নুরুল হক নুর একদিন বাংলাদেশের একজন বড় নেতা হবে তা আমরা মনে প্রাণে বিশ্বাস করতে চাই। কেননা সে তার দাবি থেকে না সরে মার খেতে জানে, ভয়কে জয় করে সত্যকে আঁকড়ে ধরে রাখতে জানে।  নূর যে আলোর পথ আজ উন্মুক্ত করে দিয়েছে তা ছাত্র রাজনীতিকে নতুনভাবে আশাবাদী করেছে ।

তিনি তার এই অতি গুরুত্বপূর্ণ ও ব্যাপক ক্ষমতাসম্পন্ন  ভিপি পদ  রাখবেন না ছেড়ে দিবেন, নাকি সমস্ত দলগুলি নিয়ে তিনি কি পূর্ণনির্বাচন চাবেন যে নির্বাচন সরাসরি প্রত্যক্ষ ছাত্র ও জনতা কে সঙ্গে নিয়ে যেখানে অস্বচ্ছ ব্যালট বাক্স থাকবে না, যে নির্বাচনে হলে হলে ভোট গ্রহণ হবে না, যে নির্বাচনে হাজার হাজার পর্যবেক্ষক থাকবেন।  নুরুল হক নুর এর ভূমিকা আমাদের নতুন করে সম্ভাবনার আলো দেখায়। শত প্রতিকূলতা, চাপ, ভয় জয় করে যিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষে লড়ে যাচ্ছেন, তার মধ্যে বড় নেতার ছায়া খুজে পাওয়া নিশ্চয়ই দোষের কিছু না।

ভিডিও আলোচনা দেখুন-  টক্ অফ দা কান্ট্রি ভিপি নূর : যাবে কত দূর II BanglaInfotube Bangladesh Adda

 

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *