বাংলা ইনফোটিউব, নিউইয়র্ক :নিউইয়র্কস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল যথাযথ মর্যাদায় “শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস” পালন করেছে। কর্মসূচীর অংশ হিসেবে ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ কনস্যুলেট জেনারেল এ আনুষ্ঠানিকভাবে পতাকা অর্ধনমিত করা হয় এবং দিবসটি উপলক্ষে প্রেরিত মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা ও দেশের অব্যাহত শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

কনস্যুলেট জেনারেল মিলনায়তনে ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ সন্ধ্যায় একটি আলোচনা সভা ও ভাষা-ভিত্তিক একটি বর্ণিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি জনাব মোহাম্মদ ফারুক খান,এমপি, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত জনাব মাসুদ বিন মোমেন, মুখ্যবক্তা প্রখ্যাত থিংকট্যাংক এসআইএল ইন্টারন্যাশনাল এর সাবেক প্রধান নির্বাহী এবং ভাষা বিশেষজ্ঞ ড. ফ্রেডরিক এ. বসওয়েল মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের উত্তরাঞ্চলের পরিচালক মিজ্ ব্রুক ই নোবেল , বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান, ভয়েস অব আমেরিকার প্রাক্তন ব্রডকাস্টার মিসেস জাকিয়া খান অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদ্যাপনের মধ্য দিয়ে বিশ্বসম্প্রদায়ের মধ্যে ভাষাগত বন্ধনের একটি অনন্য সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে বলে বক্তারা অভিমত ব্যক্ত করেন। মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব ইসরাফিল আলম, জনাব ফখরুল ইমাম, জনাব আনোয়ারুল আবেদীন খান, জনাব মোঃ আইনুদ্দিন, এমপি এবং বাংলাদেশ সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মোঃ আব্দুর রব হাওলাদারও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

বর্ণিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে কনস্যুলেট ও স্থায়ী মিশনের পরিবার, স্থানীয় বাংলাদেশ ফাইন আর্টস একাডেমী (বাফা) এবং বিদেশী শিল্পীরা (বুলগেরিয়া, ভারত, কসোভো, লিথুনিয়া, মেক্সিকো, নেপাল, নাইজেরিয়া এবং ফিলিপাইন) অংশ গ্রহণ করেন। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম এর নাতনী অনিন্দিতা কাজী ও তার স্বামী শাহীন তরফদার এর যৌথ আবৃত্তি আগত অতিথিদের মুগ্ধ করে। মার্কিন কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন দেশের কনসাল জেনারেল সহ কূটনীতিকবৃন্দ, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধি এবং বাংলাদেশ কম্যুনিটির নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। পরিশেষে, ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশী খাবারে অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয়।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় এগিয়ে চলা বাংলাদেশের সামগ্রিক কল্যাণে প্রবাসীদের অব্যাহত সমর্থনের প্রশংসা আবারো করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৬ ফেব্রুয়ারি সোমবার অপরাহ্নে ঢাকায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাত করে ‘বঙ্গবন্ধু মেমরিয়্যাল ট্রাস্ট ফান্ড’-এ চেক প্রদান করেন নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ‘কাদের মিয়া ফাউন্ডেশন’র প্রতিষ্ঠাতা-চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল কাদের মিয়া।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *