ইউটিউবে সবচেয়ে বেশি দেখা ১০ ভিডিও

ইউটিউবে সবচেয়ে বেশি দেখা ভিডিও

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং সোশ্যাল ওয়েবসাইট ইউটিউব প্রতিষ্ঠিত হয় ২০০৫ সালে। গত কয়েক বছরে ইউটিউব ব্যবহারকারীর সংখ্যা এতটাই বৃদ্ধি পেয়েছে যে সেটি জিমেইলের মোট ব্যবহারকারীর সংখ্যাকেও ছাড়িয়ে গেছে। এমনকি ইউটিউবের জনপ্রিয়তা ফেসবুকের কাছাকাছি চলে এসেছে। বর্তমানে প্রতিদিন ৩০ মিলিয়নেরও বেশি মানুষ ইউটিউব ব্যবহার করেন।

ইউটিউবে প্রতিদিন প্রায় ৫ বিলিয়ন ভিডিও দেখা হয়। এত সব ভিডিওর মাঝে এমন কিছু ভিডিও আছে যেগুলো মানুষের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে।  আজকে ইউটিউবে সবচেয়ে বেশিবার দেখা হয়েছে এমন ১০টি ভিডিওর তথ্য জেনে নিন।

১০.  Shake it off

জনপ্রিয় মার্কিন পপ তারকা টেইলর সুইফটের একটি মিউজিক ভিডিও অনলাইন জগতে ব্যপক সাড়া ফেলেছিল। ২০১৪ সালে Shake it off নামে রিলিজ হওয়া এই গানটি একাধিক সম্মাননার পাশাপাশি ২০১৫ সালে পিপলস চয়েস অ্যাওয়ার্ড জিতে নেয়। গানটির দৃশ্যায়নে নানা ধরনের উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের পাশাপাশি গায়িকা নিজেই অংশ নিয়ে এই গানটিকে নিয়ে গিয়েছেন অন্য এক লেভেলে। ইউটিউব এ গানটি রিলিজ হওয়ার পর থেকে এ বছরের মে মাস পর্যন্ত ২.৭ বিলিয়নেরও বেশি ভিউ হয়েছে।

০৯. Roar

মার্কিন পপ তারকা কেটি প্যারীর ROAR শিরোনামের গানটি ইউটিউবে প্রকাশিত হয় ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ তে। প্রকাশের আগ থেকেই গানটির টিজারে উল্লেখযোগ্য পরিমান রেসপন্স আসা শুরু হয়েছিলো। মূলত মিউজিক ভিডিওটিতে কেটি প্যারী একজন বিমান বিধ্বস্ত যাত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেন যে কিনা একটি বন্য পরিবেশে নিজেকে একটি বাঘের সাথে তুলনা করার মাধ্যমে আত্মপ্রত্যয়ী হয়ে উঠে। ভিডিওটি ইউটিউবে ২.৮ বিলিয়নের বেশি ভিউ হয়েছে।

০৮. Sugar:

Marron 5 এর গান আমরা কম-বেশি সবাই শুনেছি। প্রতিটি গানে তারা চেষ্টা করে শ্রোতাদের নতুন কিছু উপহার দেয়ার। তারই ধারাবাহিকতায় ২০১৫ সালের ১৪ই জানুয়ারি ইউটিউবে প্রকাশিত হয় সুগার শিরোনামে তাদের অসাধারন একটি মিউজিক ভিডিও। এই গানে ওয়েডিং ক্র্যাশার মুভির একটি ম্যরেজ ইভেন্ট কভার করে পুরো ব্যান্ড দলটিকে কাস্ট করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত এই গানের মোট ভিউয়ের সংখ্যা ২.৯ বিলিয়ন।

০৭. Sorry

সপ্তম অবস্থানে রয়েছে জাস্টিন বিবারের মিউজিভ ভিডিও Sorry। দীর্ঘ সময় আমেরিকার বিভিন্ন টপ চার্টে থাকা এই মিউজিক ভিডিওটি ইউটিউব এ প্রকাশিত হয় ২০১৫ সালে। গানের লিরিকে মূলত প্রেমিকাকে নানাভাবে সরি বলার প্রয়াস ঘটেছে। যদিও ভিডিওতে ছিলো যথেষ্ট বিনোদনের উপাদান।

০৬. Gangnam Style

বিশ্বজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি করা মিউজিক ভিডিও Gangnam Style” রয়েছে ৬ষ্ঠ স্থানে। কোরিয়ান পপ তারকা PSY ১৫ই জুলাই ২০১২ তে গানটি ইউটিউবে অবমুক্ত করেন। গানের কম্পোজিশন থেকে শুরু করে কোরিওগ্রাফি সবখানে ছিলো নৈপুণ্যতা। বিভিন্ন দেশের টপচার্টে গানটি দীর্ঘসময় ধরে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছিলো এবং অর্জন করেছছিল একাধিক অ্যাওয়ার্ড। এখন পর্যন্ত এই গানটি ৩.৩ বিলিয়ন মানুষ ইউটিউবে দেখেছে।

০৫.  Recipe for Disaster

মাশা অ্যান্ড দ্যা বেয়ার অত্যান্ত জনপ্রিয় একটি এনিমেটেড কার্টুন সিরিজ। এরই রেসিপি ফর ডিজাস্টার পর্বটি ঝড় তুলেছিলো সমগ্র ইউটিউবে। রুশ ডেভলপার Animaccord Animation Studio এই কার্টুন সিরিজটি ২০০৯ সাল থেকে ইউটিউব এ প্রকাশ করে আসছে। প্রতিটি পর্বই যথেষ্ট জনপ্রিয়তা পেলেও Recipe for Disaster পর্বটি যোগ করেছে অন্য মাত্রা। আশ্চর্যজনক হলেও এটাই সত্য যে এটিই একমাত্র টপ রেটেড ইউটিউব ভিডিও যা কিনা কোন মিউজিক ভিডিও নয়। এখন পর্যন্ত পর্বটির ভিউয়ের সংখ্যা প্রায় ৩.৬ বিলিয়ন, যা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার।

০৪. Uptown funk

২০১৫ সালের অন্যতম জনপ্রিয় সঙ্গীত ছিল মার্ক রনসনের আপটাউন ফাঙ্ক। যেটাতে কন্ঠ দিয়েছিলেন আরেকজন জনপ্রিয় শিল্পী ব্রুনো মারস। টানা ১৪-সপ্তাহ ধরে এই গানটি ইউএস বিলবোর্ড-১০০ তে স্থান পায় এবং ইউকে টপ-১০০ সহ অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, ইত্যাদি দেশের সঙ্গীতের টপ চার্ট মাতিয়ে রাখে সপ্তাহের পর সপ্তাহ। বিশ্ব সঙ্গীতের অন্যতম সম্মানের পুরষ্কার গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড জেতে। এখন পর্যন্ত ইউটিউবে এই গানটি ৩.৫ বিলিয়নবার দেখা হয়েছে যেটা ইউটিউবের ইতিহাসে চতুর্থ সর্বচ্চো।

০৩. See You Again 

হৃদয় ছোঁয়া সুরে গাওয়া See You Again গানটি গেয়েছিলেন হুইজ খলীফা এবং প্রথম এই গানটি ব্যবহার করা হয় ফাস্ট এন্ড ফিউরিয়াস ৭ মুভিতে – মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত অভিনেতা পল ওয়াকারের স্মৃতির উদ্দেশ্যে। ২০১৭ সালে এই গানটি টানা এক মাস মোস্ট ভিউড লিস্টে ছিলো। ৪.১ বিলিয়নের বেশি দেখা হয়েছে এটি। 

০২. Ed Sheeran এর “Shape of you

মনোদৈহিক প্রেমের উত্তাল আবেগের আলোড়ন তোলা ইংরেজি এই গানটি ২০১৭ তে বের হয় এবং সাথে সাথেই জনপ্রিয়তার তকমাটি গায়ে সেঁটে নেয়। তারপর ৩৪ টি দেশের টপ চার্টে টানা এই গানটি অবস্থান করে যেখানে ইউএস বিলবোর্ড-১০০ এ ১৬ সপ্তাহ এবং ইউকে বিলবোর্ড-এ অবস্থান টানা ১৪-সপ্তাহ রাজত্ব করেএই গানের অ্যালবাম প্রায় ২৬.৬ মিলিয়ন ইউনিট বিক্রি হয় এবং স্পটিফাই এর মত ডিজিটাল মিউজিক প্ল্যাটফর্ম-এ এই গানটি দোর্দণ্ডপ্রতাপের সাথে রাজত্ব করে। এই গানটি ইউকে-তে বেস্ট সেলিং ডিজিটাল সং অ্যাওয়ার্ড জিতেছিল।

০১. Luis Fons  এর “Despacito

ইউটিউবে ছয় বিলিয়ন ভিউ, ৪৭টি দেশে জনপ্রিয়তার মুকুট, ১৬-সপ্তাহ যাবত বিশ্বের প্রধানতম সঙ্গীত বিলবোর্ডগুলোতে মাধুর্যের রাজত্ব – এই সবই একটি গানের দিকেই ইঙ্গিত করে সেটা হল – লুই ফনসি’র দেসপাসিতো। লুই ফনসি’র সাথে অবশ্য কন্ঠ দিয়েছিলেন ড্যাডি ইয়াঙ্কি। গানের সাথে সাথে এই মিউজিক ভিডিওটিও সমান জনপ্রিয় হয়েছিল, যেটা নিয়ে ফনসি বলেছিলেন যে, এই গানের ভিডিওতে দক্ষিণ আমেরিকার সংস্কৃতি এবং কৃষ্টি ফুটে উঠেছে। ১৯৯৬ সালে অবমুক্ত হওয়া “মাকারেনা” গানটির পরে এই গানটিই স্প্যানিশ সঙ্গীত হিসেবে ইউএসএ- তে প্রথম জনপ্রিয়তার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়।

[২৫ মে ২০১৯ পর্যন্ত হিসেব করে এই তালিকা তৈরি করা হয়েছে] 

লেখক- সালেহীন সাকিব 

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সাম্প্রতিক পোস্ট

সর্বাধিক পঠিত